১৮ বছর পর কী ইস্টবেঙ্গল তাঁবুতে ঢুকবে আই লিগ?

Life24 Desk   -  

১৮ বছর আগে প্রথমবার জাতীয় লিগ পেয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। জাতীয় লিগ থেকে বদলে আই লিগ হয়েছে। তারপর অনেক বছর কেটে গেলেও লাল-হলুদ শিবিরে ঢোকেনি আই লিগ। এটা ২০১৯।  ১৮ বছর আগে কেরলের মাটিতেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। এবার সেই করলেই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার হাতছানি লাল-হলুদ ব্রিগেডের সামনে।

সেবার ইস্টবেঙ্গলের প্রতিপক্ষ ছিল এসবিটি (স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ত্রাভাঙ্কোর)। শনিবার কোঝিকোড়ে গোকুলম-বাধা টপকাতে পারলেই স্পেনের কোচ আলেসান্দ্রো মেনেনদেজের হাতে শোভা পাবে আই লিগ। ইস্টবেঙ্গল এখন কোঝিকোড়ের হোটেলে। মেগা ম্যাচের জন্য মানসিক ভাবে নিজেদের তৈরি করছেন ইস্টবেঙ্গল ফুটবলাররা। মেনেনদেজের ছেলেরা বুঝতে পেরে গিয়েছেন, শেষ ম্যাচের গুরুত্ব। সমর্থকদের যন্ত্রণা তাঁরা উপলব্ধি করতে পারছেন।

আই লিগের জন্য অনন্ত অপেক্ষা করেছেন লাল-হলুদ সমর্থকরা। শেষ বার ইস্টবেঙ্গল জাতীয় লিগ জিতেছে ২০০৩-০৪ মরসুমে। তার পরে গঙ্গা দিয়ে গড়িয়ে গিয়েছে অনেক জল। জাতীয় লিগ নাম বদলে হয়েছে আই লিগ। ইস্টবেঙ্গল চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি।

এ বার সমীকরণ কঠিন মেনেনদেজের দলের জন্য। নিজেরা জিতলেই চলবে না। কোয়ম্বত্তূরে চেন্নাই সিটিকে পয়েন্ট হারাতে হবে মিনার্ভা পঞ্জাবের বিরুদ্ধে।

ইস্টবেঙ্গলের পরীক্ষা কতটা কঠিন? গোকুলমের হাইতিয়ান ফুটবলার ফ্যাবিয়েন ভোরবে বললেন, ‘‘ইস্টবেঙ্গলের উপরেই চাপ বেশি।’’ কারণ ব্যাখ্যা করে সনি নর্দের বন্ধু বলছেন, ‘‘আমার কাছে ফেভারিট অবশ্যই চেন্নাই। প্রথম থেকে ওরা আই লিগ নিয়ন্ত্রণ করেছে। এই মুহূর্তে আই লিগের শীর্ষে চেন্নাই। দলের ভারসাম্য রয়েছে। ইস্টবেঙ্গল কী করছে, তার উপরে চেন্নাই নির্ভরশীল নয়। ম্যাচ জিতলে চেন্নাই চ্যাম্পিয়ন।’’

ইস্টবেঙ্গলের প্রথম বার জাতীয় লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অন্যতম নায়ক সুলে মুশা এনরিকে-কোলাডোদের জন্য শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন ঘানা থেকে। দীর্ঘদেহী স্টপার সে দিন বুক চিতিয়ে লড়েছিলেন এসবিটি-র বিরুদ্ধে। পাশে পেয়েছিলেন তাঁর হার না মানা মনোভাবাপন্ন সতীর্থদের।

ইস্টবেঙ্গলকে জেতানোর পরে আনন্দে আত্মহারা হয়ে গিয়েছিলেন তাঁরা। পিছনে তাকিয়ে মুশা বলছেন, ‘‘সে বার আমরা প্রথম বার জাতীয় লিগ চ্যাম্পিয়ন হই। যা আনন্দ হয়েছিল তা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না! হোটেলে ইস্টবেঙ্গল কর্তারা আমাদের দারুণ ডিনারের বন্দোবস্ত করেছিলেন।’’ এক নিঃশ্বাসে কথাগুলো বলেই মুশা এখনকার লাল-হলুদ ফুটবলারদের পরামর্শ দিয়ে বলছেন, ‘‘সামনে কঠিন ম্যাচ। যাবতীয় সমস্যার কথা মাথা থেকে সরিয়ে ফেল তোমরা। আমার মাতৃসমা ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের জন্য তোমরা নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দাও। সমর্থকরা এই একটা খেতাবের জন্য দীর্ঘ দিন অপেক্ষায় রয়েছে। সমর্থকরা কাল জয় ইস্টবেঙ্গল বলে আমার ভাইদের তাতাক। এটাই আমি দেখতে চাই।’’

Spread the love

আপনার প্রিয় ওয়েব ম্যাগাজিন ‘Life24’-এ আপনিও লিখতে পারেন এই ম্যাগাজিনের উপযুক্ত যে কোনও লেখা। লেখার সঙ্গে পাঠাবেন উপযুক্ত ২-৩টি ফটো। লেখা পাঠাবেন ইউনিকোডে টাইপ করে। ইউনিকোড ছাড়া কোনও লেখাই গ্রহণ করা হবে না। লেখা ও ফটো পাঠাবেন editor.life24@gmail.com আইডি-তে। কোন সেগমেন্টের লেখা পাঠাচ্ছেন, তা মেলের সাবজেক্টে অবশ্যই লিখে দেবেন। আর অবশ্যই মেলে আপনার নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর জানাবেন।

Life24 ওয়েব ম্যাগাজিনে খুব কম খরচে আপনার পণ্য কিংবা সংস্থার বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন। বিস্তারিত জানার জন্য মেল করুন advt.bearsmedia@gmail.com আইডি-তে।

Life24 ওয়েব ম্যাগাজিনে ৩১ মার্চ পর্যন্ত আপনি একেবারেই বিনামূল্যে দিতে পারবেন শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপন। এই বিভাগের যে কোনও সেগমেন্টের জন্য ৫০ শব্দের মধ্যে ইউনিকোডে লিখে মেল করে দিন advt.bearsmedia@gmail.com আইডি-তে।  মেলের সাবজেক্টে লিখে দেবেন 'শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপন'।

# 'Life24' ওয়েব ম্যাগাজিন বা এই ওয়েব ম্যাগাজিনের লেখা সম্পর্কে আপনার মতামত লিখে জানান নিচের কমেন্ট বক্স-এ। আর হ্যাঁ, ম্যাগাজিনটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার পরিচিতদের।