স্মৃতি ইরানিকে এক হাত নিলেন ফিরহাদ হাকিম

Life24 Desk   -  

দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী কে হবেন সে নিয়ে রাজনৈতির মহলে ইতিমধ্যে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে। অনেকেই মনে করছেন দেশের আগামী প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন। তৃণমূলের নেতা-মন্ত্রীরাও তাই চান। কলকাতার মেয়র ও মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম দেশের উন্নয়নের স্বার্থে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চান।

সম্প্রতি জয়নগর পুরসভার ইন্দিরা মাঠে জেলার তৃণমূল যুব সংগঠনের ডাকে বিজেপি–র সভার পালটা প্রতিবাদ সভায় এসে এমনটাই জানিয়েছেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, ‘‌সারা দেশের মানুষ বাংলার উন্নয়নের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন। তাই আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী হলে রাজ্যের মতো সারা ভারতের মেয়েরা ‘‌কন্যাশ্রী’‌–‌র‌ সুযোগ পাবে। সারা দেশের ছাত্রছাত্রীরা ‘‌সবুজ সাথী’‌ সাইকেল পাবে। রাজ্যের মতোই দেশবাসী সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসার সুযোগ পাবেন। সারা ভারতের কৃষকদের রোজগার বাড়বে। তাই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মমতা ব্যানার্জিকেই দেখতে চাই।’‌
তবে এদিনের সভায় বিজেপি–র কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানিকে এক হাত নিয়ে মেয়র বলেন, ‘‌টিভি সিরিয়াল করেন। আবার মন্ত্রীও হয়েছেন। তা–ও কয়েক মাসই থাকবেন। উনি হোমওয়ার্ক না করে, ইতিহাস না জেনে বাংলার বুকে সভা করেছেন। যখন মহাকরণ থেকে মমতা ব্যানার্জিকে বের করে দেওয়া হয়, তখন কংগ্রেস নয়, ক্ষমতায় ছিল সিপিএম।’‌

এদিনের সভায় কংগ্রেসকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি। কংগ্রেসের দিকে আঙুল তুলে বলেন, ‘ওদের বিচিত্র অবস্থা। রাজ্যে কংগ্রেসের শিরদাঁড়া নেই।’‌ বিজেপি–র বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘‌১০০ বছরেও এই রাজ্যে ক্ষমতায় আসতে পারবে না ওরা।’‌ এদিনের সভায় মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বিজেপি, কংগ্রেস, সিপিএম কাউকেই কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। তবে তাঁর কথার জবাব দিতে গিয়ে বিরোধী দলগুলি কী বক্তব্য রাখে সেটাই দেখার।

 

 

Spread the love