ফ্যাশনে রুপোর গয়না ও তার যত্ন

Life24 Desk   -  

গয়নার সাথে বাঙালি নারীর সম্পর্ক যুগ-যুগান্তরের। একটা সময় বাংলার গ্রাম বাংলায় নারীদের গয়না বলতে ছিল, পায়ের মল, হাতের বাজু আর কোমরের বিছা। আর এসব গয়নার সিংহভাগই তৈরি হতো রুপো দিয়ে। তখন বাঙালি নারীদের গয়নায় রুপোর দাপট ছিল বেশ। সৌন্দর‌্য, আভিজাত্য আর সাজসজ্জায় রুপো ছিল তাদের প্রথম পছন্দ ও ভরসা। নানান বাহারি নকশা আঁকা রুপোর গয়না শোভা পেত গয়না ভালোবাসেন এমন নারীদের অঙ্গে। শুধু কি তাই? জমিদার বাড়িতে পানদানি, ফুলদানি ইত্যাদি সব কিছুতেই রুপোর ব্যবহার হতো।

কালের বিবর্তনে রুপোর জায়গা দখল করে নিয়েছে সোনা, হিরে সহ বিভিন্ন মেটাল ও পাথরের গয়না। কিন্তু এ সত্ত্বেও নারীর ব্যক্তিত্ব এবং রুচির সঙ্গে তাল মিলিয়ে বিকশিত হয়েছে রুপোর গয়নার নকশা আর আকার-আকৃতি। বর্তমানে নিত্যনতুন ডিজাইনের রুপোর গয়না দিয়ে  রীতিমতো ট্রেন্ডি হয়ে উঠছেন বঙ্গ ললনারা। শাড়ি কিংবা ফতুয়া, সাধারণ অনুষ্ঠান কিংবা বিয়েবাড়ি, বর্ষা হোক বা হেমন্ত– সবকিছুর সাথেই তাল মেলাতে রুপোর গয়নার জুড়ি নেই। আর তাই তো বাঙালি নারীদের পছন্দের তালিকায় এখন রুপোর স্থান বেশ উঁচুতে। অনেকে আবার রুপোর গয়নায় গোল্ড প্লেটিং করিয়ে গয়নায় আনছেন নতুনত্ব। ভারী কাজের গয়না হিসাবে গোল্ড প্লেটের কাজ করা রুপোর গয়না বেশ চলছে আজকাল। এখন রুপোর গয়না এমনভাবে তৈরি করা হচ্ছে, যা অফিস হোক বা পার্টি, দেশীয় বা পাশ্চাত্য পোশাকে অনায়াসে মানিয়ে যাবে। এসব গয়না শাড়ির সঙ্গেও যেমন পরা যায়, জিনসের সঙ্গেও সমান মানানসই।

মনে করুন, লং একটা শর্ট হাতা বা স্লিভলেস ফতুয়া পরেছেন, তার সঙ্গে এক হাতে একটা বাজু পরতে পারেন। অবশ্যই সেটা বেইজ মেটাল কপার, অ্যান্টিক কালার কিংবা সিলভারের হতে হবে। গোল্ড টাইপ নয়। আবার এই বাজুটিই আপনি পরতে পারেন শাড়ির সঙ্গে স্লিভলেস ব্লাউজের জুটি হিসাবে। আপনার স্টাইল অনুযায়ী রুপোর গয়না পরতে পারবেন। রুপোর গয়নার মধ্যে দুটি কালার রয়েছে। একটি সাদা আরেকটা কোরাপস করে অক্সিডাইড করা। ধাতব বা মেটাল দুই ধরনের হয়। একটা বেইজড মেটাল আরেককটা কেশব মেটাল। কপার বা তামা এগুলো হল বেইজ মেটাল। সিলভারটাকে অক্সিডাইড করলে সেটা অ্যান্টিক হয়। এটা ব্ল্যাকিশ, তাই সবকিছুতেই মানিয়ে যায়। ওয়েস্টার্ন আউটফিটে বেশিরভাগই ডার্ক কপার, অ্যান্টিক ব্রাজড বা অ্যানিক পলিশ, সিলভার এগুলো ভালো মানায়।

তবে শখ করে রুপোয় গয়না বানালেন, কিন্তু কিছুদিন ব্যবহারের পরই তা কালো হয়ে গেল। নিশ্চয়ই তখন মন খারাপ হবে আপনার। এর চেয়ে বরং জেনে নিন কী করে রুপোর গয়নার যত্ন নিতে হবে–

# বাইরে থেকে ফিরে এসেই রুপোর গয়নাকে বাক্সে রেখে দেবেন না। বরং কিছুটা সময় বাতাসে রাখুন। এরপর টিসু্য পেপার পেঁচিয়ে সুন্দর করে রাখুন।

# অন্যান্য গয়নার সাথে রুপোর গয়নাগুলো না রেখে সেগুলোকে আলাদা বাক্সে রাখুন। সোনা আর রুপোর গয়না

এক বাক্সে রাখলে রুপোর বর্ণ কালচে হয়ে যায়।

# রুপোর গয়না কালো হয়ে গেলে একটি বাটিতে তেঁতুল গুলে নিয়ে সেই জলে গয়না ১০-১৫ মিনিট রেখে ব্রাশ দিয়ে ঘষে নিন। উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।

# হালকা গরম জলে সাদা টুথপেস্ট গুলিয়ে গয়না পরিষ্কার করুন। কালচে ভাব চলে যাবে।

# গোল্ড প্লেটেড গয়না কালো হয়ে গেলে সোনার দোকানে গিয়ে পালিশ করিয়ে নিন।

# হালকা গরম জলে মাইল্ড ডিটারজেন্ট দিয়েও রুপোর গয়না পরিষ্কার করে নিতে পারেন।

Spread the love

আপনার প্রিয় ওয়েব ম্যাগাজিন ‘Life24’-এ আপনিও লিখতে পারেন এই ম্যাগাজিনের উপযুক্ত যে কোনও লেখা। লেখার সঙ্গে পাঠাবেন উপযুক্ত ২-৩টি ফটো। লেখা পাঠাবেন ইউনিকোডে টাইপ করে। ইউনিকোড ছাড়া কোনও লেখাই গ্রহণ করা হবে না। লেখা ও ফটো পাঠাবেন editor.life24@gmail.com আইডি-তে। কোন সেগমেন্টের লেখা পাঠাচ্ছেন, তা মেলের সাবজেক্টে অবশ্যই লিখে দেবেন। আর অবশ্যই মেলে আপনার নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর জানাবেন।

Life24 ওয়েব ম্যাগাজিনে খুব কম খরচে আপনার পণ্য কিংবা সংস্থার বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন। বিস্তারিত জানার জন্য মেল করুন advt.bearsmedia@gmail.com আইডি-তে।

Life24 ওয়েব ম্যাগাজিনে ৩১ মার্চ পর্যন্ত আপনি একেবারেই বিনামূল্যে দিতে পারবেন শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপন। এই বিভাগের যে কোনও সেগমেন্টের জন্য ৫০ শব্দের মধ্যে ইউনিকোডে লিখে মেল করে দিন advt.bearsmedia@gmail.com আইডি-তে।  মেলের সাবজেক্টে লিখে দেবেন 'শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপন'।

# 'Life24' ওয়েব ম্যাগাজিন বা এই ওয়েব ম্যাগাজিনের লেখা সম্পর্কে আপনার মতামত লিখে জানান নিচের কমেন্ট বক্স-এ। আর হ্যাঁ, ম্যাগাজিনটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার পরিচিতদের।