রোগ দূর করতে দুধের ভূমিকা

Life24 Desk   -  

নিয়মিত দুধ খেলে মেলে অনেক উপকার। দুধে ক্যালসিয়াম সহ ভিটামিন এ, বি১২,  আরও সব পুষ্টিকর উপাদান যা শরীরের উপকারে লেগে থাকে। এছাড়া,ভাবী মায়েদের ক্ষেত্রেও খুবই উপকারী।কিন্তু দুধের মধ্যে  এমন কী আছে যা ভাবী মায়েদের শরীরের গঠনে এতটা সাহায্য করে? এও বলা হয়েছে যদি দুধ এবং অন্যান্য দুগ্ধজাত খাবার নিয়মিত খেতে পারেন অনেক ধরনের রোগ থেকে নিজেদের দূরে রাখা যাবে।

সম্প্রতি একটি গবেষণাতেও এমনটা বলা হয়েছে যে, প্রসবের সময় নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা কমে যায় যদি নিয়মিত দুধ খেতে পারা যায়। বিজ্ঞানীরা এও জানিয়েছেন যে দুগ্ধজাত খাবারের ভিতরে এমন কিছু উপকারি ব্যাকটেরিয়া আছে যা শরীরে প্রবেশ করার পর কিছু পরিবর্তন হয়, যার ফলে তার প্রভাবে প্রি-ম্যাচিওর বার্থ, প্রি-এ্যাকলেমশিয়া সহ-র মতো প্রসব সংক্রান্ত নানা ধরনের জটিলতা হওয়ার আশঙ্কা একেবারে কমিয়ে দেয়।বলা হয়েছে যে,প্রেগন্যান্সির একেবারে প্রথম ধাপ থেকেই দুধ বা দই এবং অন্যান্য দুগ্ধজাত খাবার নিয়মিত খেতে শুরু করলে প্রি-ম্যাচিওর প্রসব ও প্রি-এ্যাকলেমশিয়ার হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়।

একটি সমীক্ষায় বলা হয়েছে, যে প্রায় প্রি-ম্যাচিওর প্রসেরব ২১ শতাংশ এবং প্রি-এ্যাকলেমশিয়ার প্রায় ২০ শতাংশ সম্ভাবনা কমে যায়।

শুধুমাএ ভাবী মায়েদের জন্যই উপকারি যে তা নয়। নিয়মিত দুধ খেলে আরও অনেক কী উপকারে লাগে? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই প্রথম সারির খাদ্য গবেষকরা একসাথে একটি পরীক্ষা চালিয়েছিলেন। তাতে দেখা গেছে চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার প্রয়োজনই পরবে না যদি  মাত্র নিয়মিত এক গ্লাস করে দুধ খাওয়া যায়। দুধের মধ্যে দিয়ে আমাদের শরীরে কিছু উপকারি উপাদান প্রবেশ করে যা,শরীরের প্রতিটি অঙ্গের কর্মক্ষমতা বাড়াতে বিশেষ  সাহায্য করে থাকে। এছাড়া ক্যান্সার,হাড়ের রোগ,হার্ট, কিডনি,  থেকে  সব ধরনের ছোট-বড় রোগকে দূরে রাখতেও গুরুত্বপূণ ভূমিকা পালন করে।

ক্যান্সার: ক্যান্সারের মতো মারন রোগের চিকিৎসায়ও কাজে লাগে। সম্প্রতি প্রকাশিত হওয়া একটি গবেষণায় দেখা গেছে প্রতিদিন যদি কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের দুধ খাওয়ানো যায়, তাহলে তাদের আয়ু বৃদ্ধি পায়। এমনটা কিভাবে হয়, সে বিষয়ে গবেষণা চলছে। আগামী দিনে এই প্রশ্নের উত্তরও পাওয়া যাবে। সে বিষয়ে আশা করা যেতেই পারে ।

হার্ট: গবেষণায় এও দেখা গেছে শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি হলে নানাধরনের হাড়ের রোগের আক্রান্ত হওয়ার সমস্যা বেড়ে যায়, তেমনি কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ হওয়ার সম্ভাবনাও বাড়ে।কিন্তু ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দূর হলে এই ধরনের রোগ ধারে কাছে ঘেঁষার সম্ভাবনা কমে যায়। তাই  যদি দীর্ঘদিন হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়াতে চান এবং হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে চান, তাহলে দুধ খুবই উপকারী। প্রসঙ্গত, দুধ খাওয়ার অভ্যাস করলে রক্তচাপও নিয়ন্ত্রনে থাকে।তাই দুধ খেতে ভুলবেন না যেন!

হাড়: আমাদের শরীরের ২০৬ টা হাড় রয়েছে তা আমাদের সকলেরই জানা।এই হাড়কে মজবুত করতে ক্যালসিয়াম কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আর দুধের মধ্যেই রয়েছে প্রচুর মাত্রায় ক্যালসিয়াম । তাই তো খাবারে দুধ রাখা খুবই জরুরী। নিয়মিত খেলে বয়সকালে আর্থ্রাইটিসের মতো কোনও রোগের সম্মুখিন হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়।ক্যালসিয়াম হাড়ের শক্তি বাড়ায় তার ফলে এধরনের রোগের আশঙ্কা কমে তা হলফ করে বলা যায়।

অ্যাসিডিটি: বেশ কয়েকটি কেস স্টাডি অনুসারে দেখা গেছে, বদ-হজম বা অ্যাসিডিটির মতো সমস্যা কমাতে ঠান্ডা দুধের কোনও জুরি নেই। তাই এই ধরনের কোনও সমস্যা কারর থেকে থাকলে বা দেখা দিলে চটজলদি এক গ্লাস দুধ খেতে সব সময় খেয়াল রাখবেন।অ্যাসিডিটির প্রকোপ এই এক গ্লাস দুধ-ই কমিয়ে দেয়।

ত্বক: ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতেও দুধের গুন রয়েছে। ত্বকের খেয়াল রাখতে দুধের কোনও বিকল্প নেই একথা ঠিকই শুনেছেন সবাই। আর যখন একথা  রূপের রাণী স্বয়ং ক্লিয়োপেট্রাও প্রমাণ করেছেন।প্রতিদিন দুধে স্নান করতেন মিশরের রাণী, তার ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে । কিন্তু এমনটা এখন কারর পক্ষে করা সম্ভব হবে না। কিন্তু নিয়মিত দুধ খাওয়াতো যেতেই পারে।নিয়মিত দুধ খেলে শরীরে ভিটামিন এ-এর মাত্রা বৃদ্ধি পায়।ভিটামিন এ ত্বকের জন্য খুবই দরকারি যা সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে।

দাঁত: প্রসঙ্গত, ক্যালসিয়াম হার্টের সমস্যা,হাড়ের শক্তি বাড়ানোর পাশাপাশি ক্যান্সার রোগকে দূরে রাখতে,অ্যাসিডিটির কমানো এবং সার্বিকভাবে শরীরকে সুস্থ রাখতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।সৌন্দর্য বাড়াতেও যেমন সাহায্য করে তেমন দাঁতকে শক্তপোক্ত করে এই দুধ। কয়েকটি সমীক্ষা অনুসারে বলা হয়েছে,দাঁতের ক্ষয় রোধ হয়।দাঁতের উপরে এনামেল স্থর থাকে।এই এনামেল স্থর শক্তপোক্ত হয় নিয়মিত দুধ খেলে।দাঁতের ক্ষয় এবং এই ধরনের সমস্যা দূর করতেই বাচ্চাদের নিয়মিত এক গ্লাস করে দুধ খাতে বলেন  চিকিৎসকেরা।

এবার বুঝেছেন তো কেন চিকিৎসকেরা এই প্রাকৃতিক উপদানটির পক্ষে এতটা সাওয়াল করে থাকেন।

Spread the love

আপনার প্রিয় ওয়েব ম্যাগাজিন ‘Life24’-এ আপনিও লিখতে পারেন এই ম্যাগাজিনের উপযুক্ত যে কোনও লেখা। লেখার সঙ্গে পাঠাবেন উপযুক্ত ২-৩টি ফটো। লেখা পাঠাবেন ইউনিকোডে টাইপ করে। ইউনিকোড ছাড়া কোনও লেখাই গ্রহণ করা হবে না। লেখা ও ফটো পাঠাবেন editor.life24@gmail.com আইডি-তে। কোন সেগমেন্টের লেখা পাঠাচ্ছেন, তা মেলের সাবজেক্টে অবশ্যই লিখে দেবেন। আর অবশ্যই মেলে আপনার নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর জানাবেন।

Life24 ওয়েব ম্যাগাজিনে খুব কম খরচে আপনার পণ্য কিংবা সংস্থার বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন। বিস্তারিত জানার জন্য মেল করুন advt.bearsmedia@gmail.com আইডি-তে।

Life24 ওয়েব ম্যাগাজিনে ৩১ মার্চ পর্যন্ত আপনি একেবারেই বিনামূল্যে দিতে পারবেন শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপন। এই বিভাগের যে কোনও সেগমেন্টের জন্য ৫০ শব্দের মধ্যে ইউনিকোডে লিখে মেল করে দিন advt.bearsmedia@gmail.com আইডি-তে।  মেলের সাবজেক্টে লিখে দেবেন 'শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপন'।

# 'Life24' ওয়েব ম্যাগাজিন বা এই ওয়েব ম্যাগাজিনের লেখা সম্পর্কে আপনার মতামত লিখে জানান নিচের কমেন্ট বক্স-এ। আর হ্যাঁ, ম্যাগাজিনটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার পরিচিতদের।