টিনএজারদের বন্ধু নির্বাচনের কিছু মাপকাঠি

Life24 Desk   -  

বন্ধুত্ব অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি সম্পর্ক। বন্ধু ছাড়া মানুষ থাকতে পারে না। শিশুকাল থেকে শুরু করে বার্ধক্য পর্যন্ত বন্ধুত্বের সম্পর্কে ঘিরে থাকে সবাই। এটি এমন একটি সম্পর্ক যা আপনা আপনিই হয়ে যায়। ছোটবেলার বন্ধুত্ব হয় একই জায়গায় থেকে একই সাথে খেলাধুলা করে। এরপর বয়সের সাথে সাথে বন্ধু নির্বাচনের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ঘটে। শিশু বয়সের বন্ধুত্বের আবেগ, অনুভুতি ধীরে ধীরে ফিকে হয়ে আসে।

তবে দিন বদলেছে। বিজ্ঞানীরা দেখতে পাচ্ছেন ক্রমশ বদলে যাচ্ছে বন্ধু নির্বাচনের ধারা। বর্তমানকালের টিনএজাররা বন্ধু নির্বাচনের ক্ষেত্রে অনেক কিছু বিবেচনা করে। যদিও এই নির্বাচন তাদের মনের অজান্তেই হয়ে যায়। আবার অনেক ক্ষেত্রেই সচেতন ভাবে এই কাজটি তারা করে থাকে। আজকাল টিন এজাররা বন্ধু নির্বাচনের ক্ষেত্রে অনেক ক্ষেত্রেই বেশ স্বার্থপর ও বাস্তববাদী। আসুন, দেখে নেওয়া যাক পরিবর্তনগুলো…

জনপ্রিয় সহপাঠীর বন্ধু হতে চাওয়া

মিশিগান স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষণা অনুযায়ী টিনএজারদের বন্ধু নির্বাচনের প্রথম শর্ত সহপাঠী হওয়া। এই গবেষণায় দেখা যায় যে বেশিরভাগ টিনএজার তাদের সহপাঠীর সাথে বন্ধুত্ব করতে আগ্রহী। যারা একই ক্লাসে পড়াশোনা করে ও যারা একই বিষয়ে পড়াশোনা করে তাদের বন্ধুত্ব অনেক দ্রুত হয় আর সেটাই স্বাভাবিক। তবে লক্ষণীয় ব্যাপার এই যে, আজকাল টিন এজাররা কেবল সহপাঠী নয়, বরং সবচাইতে জনপ্রিয় সহপাঠীর সাথে বন্ধুত্ব করতেই বেশি আগ্রহী। মনের মিলের চাইতে জনপ্রিয়তাই এখানে মুখ্য বিষয়।

গেমস খেলতে খেলতে বন্ধুত্ব

টিনএজ বয়সে খেলাধুলার মাধ্যমে বন্ধুত্ব হওয়ার বিষয়টি ছেলেদের মদ্ধে বিশেষ ভাবে লক্ষ্য করা যায়। স্কুলের ফুটবল, ক্রিকেট টিমের খেলোয়াড়দের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে উঠে সহজেই। তবে আজকাল চিত্র ভিন্ন। বর্তমান প্রেক্ষাপটে ভিডিও ও অনলাইন গেমস খেলার সুবাদে বন্ধুত্ব গড়ে উঠছে টিন এজারদের মাঝে।

সামাজিক সাইটে বেশি সময় কাটানো বন্ধু

টিনএজাররা সাধারণত প্রাণবন্ত ছেলে মেয়েদের সাথেই বন্ধুত্ব করতে বেশি আগ্রহী হয়। গবেষণায় দেখা যায় বেশিরভাগ টিনএজার হাসিখুশি সময় কাটাতে পছন্দ করে। এর জন্য তারা এমন বন্ধু খোঁজে যাদের সাথে প্রান খুলে হাসতে পারে। বিজ্ঞানীদের ধারণা এই কারণেই আজকাল তারা সামাজিক সাইটে বেশি সক্রিয় বন্ধু পেতে অধিক আগ্রহী। ঘর থেকে বাইরে না গিয়ে আড্ডা দিয়ে সময় পার করাটাও এখানে ভূমিকা পালন করে বলে বিজ্ঞানীদের ধারণা।

খারাপকাজে সঙ্গ পাবার মত বন্ধু

টিনএজারদের মধ্যে সব সময় নানান ধরনের চিন্তা ভাবনা কাজ করে। তাই বন্ধু নির্বাচনের সময় তারা খোঁজে একই মন মানসিকতার। আজকাল দেখা যাচ্ছে অনেক টিন এজাররাই এমন বন্ধু খুঁজে নিচ্ছে যারা তাদেরকে “খারাপ” কাজে সহায়তা করবে। যেমন নেশা করা, পর্ণ ছবি দেখা। আশংকার বিষয়টি হচ্ছে পর্ণ ছবি দেখার সুবাদে প্রচুর নতুন বন্ধুত্ব তৈরি হচ্ছে টিন এজারদের মাঝে।

মা বাবার সাথে দূরত্বের কারণে বন্ধুত্ব

টিনএজ বয়সে এমন অনেক কথা থাকে যা তারা বাবা মায়ের কাছে বলতে পারে না জেনারেশন গ্যাপের কারনে। নিজেদের মনের সকল কথা ভাগাভাগি করে নেওয়ার জন্য টিনএজাররা একজন বিশ্বস্ত বন্ধু কামনা করে যার সাথে বিনা দ্বিধায় যে কোন কথা বলা যায়। এই ব্যাপারটা আগেও ছিল, কিন্তু এখন অনেক বেশি প্রকট। কেননা কেবল জেনারেশন গ্যাপ নয়, মা বাবার ব্যস্ত জীবনের কারণেও নিঃসঙ্গতায় ভুগছে টিনএজাররা। ফলে সেই শুন্য স্থান পূরণ করার জন্য তারা দারস্থ হচ্ছে বন্ধুদের।

Spread the love

আপনার প্রিয় ওয়েব ম্যাগাজিন ‘Life24’-এ আপনিও লিখতে পারেন এই ম্যাগাজিনের উপযুক্ত যে কোনও লেখা। লেখার সঙ্গে পাঠাবেন উপযুক্ত ২-৩টি ফটো। লেখা পাঠাবেন ইউনিকোডে টাইপ করে। ইউনিকোড ছাড়া কোনও লেখাই গ্রহণ করা হবে না। লেখা ও ফটো পাঠাবেন editor.life24@gmail.com আইডি-তে। কোন সেগমেন্টের লেখা পাঠাচ্ছেন, তা মেলের সাবজেক্টে অবশ্যই লিখে দেবেন। আর অবশ্যই মেলে আপনার নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর জানাবেন।

Life24 ওয়েব ম্যাগাজিনে খুব কম খরচে আপনার পণ্য কিংবা সংস্থার বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন। বিস্তারিত জানার জন্য মেল করুন advt.bearsmedia@gmail.com আইডি-তে।

Life24 ওয়েব ম্যাগাজিনে ৩১ মার্চ পর্যন্ত আপনি একেবারেই বিনামূল্যে দিতে পারবেন শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপন। এই বিভাগের যে কোনও সেগমেন্টের জন্য ৫০ শব্দের মধ্যে ইউনিকোডে লিখে মেল করে দিন advt.bearsmedia@gmail.com আইডি-তে।  মেলের সাবজেক্টে লিখে দেবেন 'শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপন'।

# 'Life24' ওয়েব ম্যাগাজিন বা এই ওয়েব ম্যাগাজিনের লেখা সম্পর্কে আপনার মতামত লিখে জানান নিচের কমেন্ট বক্স-এ। আর হ্যাঁ, ম্যাগাজিনটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার পরিচিতদের।